আল্লাহ ২ ধরনের লোকদের ক্ষমা করবেন না | শবে বরাতের রাত্রে

বিশ্বে মুসলিম উম্মাহর জন্য, শবে বরাত হচ্ছে একটি গুরুত্বপূর্ণ রাত। এই রাতের ইবাদত সম্পর্কে অনেকে জানে না। এই রাত্রে আল্লাহ তায়ালা সবাইকে ক্ষমা করবেন। কিন্তু আল্লাহ ২ ধরনের লোকদের ক্ষমা করবেন না (সহি বুখারী)। এই রাতে আল্লাহ শেষ আসমানে আসে বান্দাদের দেওয়ার জন্য।

২ ধরনের লোকদের আল্লাহ ক্ষমা করবেন না

আল্লাহ ক্ষমাশীল। আল্লাহ চাইলে যে কাউকে ক্ষমা করে দিতে পারবেন। কিন্তু আল্লাহ ২ ধরনের লোকদের ক্ষমা করবেন না। নিচে দেওয়া হলো।

১. শিরক কারী
২. হিংসা পোষণ কারী

শিরক কি?

শবে বরাতের রাত্রে আল্লাহ তায়ালা শিরক কারীকে ক্ষমা করবেন না। কারণ শিরক হলো আল্লাহ সাথে কাউকে শরীক করা। আল্লাহ না মেনে অন্য কিছুর প্রার্থনা করা হলো শিরক।

শবে বরাতের রাত্রে আল্লাহ ২ ধরনের লোকদের ক্ষমা করবেন না

অনেকে ব্যাক্তি পুজা করে এটাও শিরক। আবার অনেকে দেখা যায় মুর্তি পূজা করে এটাও শিরক। অনেকে দেব দেবির পূজা করে এটাও শিরক। অনেক মুসলমান কবর পূজা করে, আবার মাজার পূজা করে এই গুলো শিরক।

মোট কথা আল্লাহকে ছাড়া যে কিছুর ইবাদত করো, অথবা পূজা করো। তাহলে শিরকের অন্তর্বুক্ত হয়ে যাবে।
আল্লাহ এক আল্লাহর সাথে কাউকে শরীক করা যাবে না। একমাত্র আল্লাহর ইবাদত করতে হবে।

আরো পড়ুনঃ

শবে বরাতের নামাজের নিয়ম কানুন

হিংসা কি?

আল্লাহ তায়ালা শবে বরাতের রাত্রে, হিংসা পোষণ কারীকে ক্ষমা করবেন না। হিংসা হলো কারো প্রতি হিংসা বিদ্বেষ করা। অন্যর অনেক টাকা দেখে হিংসা করা। অন্যার বাড়ী গাড়ী ধন সম্পদ দেখে হিংসা করা।

আজ কাল দেখা যায় ভাই ভাইয়ের মধ্যে কত ঝগড়া হচ্ছে। আবার এক ভাই আরেক ভাইকে দেখতে পারে না। হিংসা করে থাকে। এক ভাই আরেক ভাইকে হিংসা করে টাকা দেয় না। সম্পদ দেয় না। ভাইয়ের প্রতি জুলম করে থাকে। এই সব কিছুই হিংসার কারনে হয়ে থাকে। হাদিস শরীফে রয়েছে, হিংসা দুনিয়ার সাধকে ধ্বংস করে দেয়।

হিংসা করে গরীব দুঃখীদের ঠকানো কারীকে আল্লাহ ক্ষমা করবেন না। মা বাবার সাথে হিংসা করা যাবে না। যদি করে থাকেন, মা বাবার কাছে ক্ষমা চেয়ে নিতে হবে। শুধু মা বাবা না আপনি যার সাথে হিংসা করে, তাকে ঠকাইছেন। তার কাছে ক্ষমা চেয়ে নিবেন।

অন্য দিকে দেখা যায় অনেকে আত্নীয় দের হিংসা করে থাকে। টাকা পয়সা, ধন সম্পদ নিয়ে কত হিংসা, জুলম করে থাকে। এই সব কিছুর জন্য আল্লাহ আপনাকে ক্ষমা করবেন না। হাদিস শরীফে রয়েছে, আত্মীয়তা ছিন্ন কারী বেহেশতে প্রবেশ করিবে না।

হিংসার কারণে আল্লাহ ক্ষমা করবেন না

আল্লাহ তায়ালা এই শবে বরাতের রাত্রে দুই ধরনের লোকদের ক্ষমা করবেন না। তার মধ্যে একটি হলো হিংসা। হিংসা নাই এমন কোনো মানুষ এমন কোনো মানুষ খুজে পাওয়া অসম্ভব। যে কোনো কিছুর কারনে কারো মনে হিংসা জন্মায়।

তাই মহানবী (সঃ) বলেছেন। হিংসা হইতে দূরে থাকো। কেননা হিংসা দুনিয়ার সাধকে ধ্বংস করে দেয়। যেমন আগুন কাটকে জালিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

হিংসা বলতে এখানে, জুলুম করা, ব্যবিচার, খারাপ কাজে লিপ্ত থাকা। কাউকে ঠকানো, এমনকি গীবত এর কথা ও উল্লেখ রয়েছে। গীবত কারীকে ও আল্লাহ অপছন্দ করেন। আল্লাহ গীবত কারিকে ও ক্ষমা করবেন না। গীবত একটি মারাত্মক গুনার কাজ।

তাই মহানবী ( সঃ) বলছেনঃ গীবত করা, আর মৃত ভাইয়ের গোস্ত খাওয়ার সাথে তুলনা করেছেন। তাই গীবত থেকে সাবধান।

শবে বরাতের গুরুত্বপূর্ণ আরো অনেক বিষয় রয়েছে। আমাদের সাইটে আরো কিছু নিয়ে হাজির হবো ইনশাআল্লাহ।

আমাদের আর্টিকেল অনুযায়ী যদি উপকৃত হয়ে থাকেন। তাহলে আমাদের সাইটে প্রতিদিন ভিজিট করে নতুন কিছু জানুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

20 + twenty =

Scroll to Top